ফটোচেক

Tool A:

 সামাজিক যোগাযোা মাধ্যমে বিশেষ করে ফেসবুকে প্রায়শই বিভিন্ন ধরনের ছবি ভাইরাল হতে দেখা যায়। এগুলোর অধিকাংশই পুরাতন এবং এডিট করা। প্রতারণা বা অন্য কোন উদ্দেশ্য হাসিলের জন্য একদিকে যেমন পুরাতন ছবি নতুন করে বা বিদেশের ছবি বাংলাদেশের বলে ছড়িয়ে দেয়া হয়, অন্যদিকে জোড়াতালি দিয়ে ছবি এমনভাবে বানানো হয় যেন মানুষ সেটাকে আসল মনে করে। না জেনে, না বুঝে অনেকে এরকম ফটোতে লাইক দিয়ে অথবা শেয়ার করে তারা অনৈতিক কর্মের অংশীদার হয়। এসব ছবি যাচাই করার উপায় আছে আর সেটা করা কঠিন না। ২টি টুলস (Tools) ব্যবহার করে একজন ফেসবুক ব্যবহারকারী সহজেই ছবি যাচাই করতে পারেন।

লাল চিহ্নিত অংশে ক্লিক করলে ইমেজ আপলোডের ডায়লগ বক্স ওপেন হবে।

অনলাইন থেকে কোনো ইমেজ আপনি সরাসরি যাচাই করতে চাইলে, paste image URL অংশে ইমেজ লিংক পেস্ট করে সার্চ বাই ইমেজ এ ক্লিক করুন। সেক্ষেত্রে ঐ বিষয়ে ইন্টারনেটে থাকা সকল তথ্য উঠে আসবে। 

URL-এর পাশে Upload an image অংশে ব্রাউজ বাটনে ক্লিক করলে ফাইল আপলোডের একটি বক্স ওপেন হবে।

যে ছবি/ইমেজ যাচাই করতে চান সেটা select করে ওপেন বাটনে চাপ দিলে ইন্টানেটে ঐ ইমেজ সংক্রান্ত সকল তথ্য উঠে আসে।

এভাবেই একটি ইমেজ সম্পর্কে সকল তথ্য পাওয়া যায়।

অনেক সময় পুরনো কোনো ছবি নতুন করে একই বা ভিন্ন প্রসঙ্গে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে বিভ্রান্তির সৃষ্টি করা হয়। সেক্ষেত্রে গুগল ইমেজ রিভার্স ইঞ্জিনিয়ারিং এর মাধ্যমে এর সত্যতা যাচাই করা যায়। একটি উদাহরণের মাধ্যমে বিষয়টি তুলে ধরা হলোঃ

কিছুদিন পূর্বে একটি ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে যেখানে বলা হয় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত শিশুকে কোনো হাসপাতালে ভর্তি করতে না পেরে বাবা তাকে কোলে নিয়ে ঢাকার মুগদা হাসপাতালের সামনে ফুটপাতে বসে পড়েছে। Factখুঁজির অনুসন্ধানী টিম ছবিটিকে গুগল রিভার্স ইমেজ ইঞ্জিনিয়ারিং ব্যবহার করে আবিস্কার করে ছবিটি মিশরের এবং Fareed Kotb নামে মিশরের এক ফটোসাংবাদিক কায়রো শহর থেকে ছবিটি তোলেন। 

Tool B:

Photo Forensic (JPEGsnoop): ফেসবুকে অনেক ছবি ভাইরাল হয় যা এডিটেড বা জোড়াতালি দেয়া এবং সাধারনত মানুষের চোখে তা ধরা পড়ে না। এই টুলের সাহায্যে একটি ফটো এডিট করা হয়েছে কিনা তা সহজেই বের করা যায়। এছাড়াও উক্ত ফটো সম্পর্কিত মূল্যবান ফরেনসিক তথ্য এই Tool ব্যবহার করার মাধ্যমে পাওয়া যায়। টুলটি ডাউনলোড করতে ক্লিক করুন…

যেভাবে টুলসটি ব্যবহার করবেনঃ প্রথমেই টুলসটির গ্রাফিক্যাল আইকনে ডবল ক্লিকের মাধ্যমে এর ইন্টারফেসে প্রবেশ করতে হবে।

ইন্টারফেসে ফাইল বাটনে ক্লিক করলে অনেকগুলো অপশনসহ একটি ডায়লগ বক্স হাজির হবে। সেখান থেকে “Open Image” বাটনে ক্লিক করে আপনার ফটো আপলোড করতে হবে।

ফটো আপলোডের সাথে সাথেই এর সকল ডাটা লিস্ট আকারে চলে আসবে।

এই সকল তথ্য বা রিপোর্টের নীচের অংশে খেয়াল করলে দেখতে পাবেন (বৃত্ত চিহ্নিত) যে ফটোটি প্রসেসড বা এডিটেড কিনা, নাকি অরিজিনাল

এক্ষেত্রে দেখা যাচ্ছে যে ছবিটি অরিজিনাল (বৃত্ত চিহ্নিত), এটা এডিট করা হয়নি। 

একটি উদাহরণের মাধ্যমে বিষয়টি তুলে ধরা হলোঃ

২০২০ সালের জুনে সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোহাম্মাদ নাসিম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এমন একটি ছবি ফেসবুকে ভাইরাল হয়। আমরা ফটোটি ফরেনসিক করলে এর সত্যতা বের হয়ে আসে। চায়নার হুয়ান শহরের একটি হাসপাতালের ছবি ফটোশপ করে নাসিমের ফেইক ছবি বানানো হয়েছে। ছবিটি পুরাতন এবং অনেক গণমাধ্যমে এর আগে ছাপা হয়েছে। 

এ সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *